ঢাকা ও চট্টগ্রাম জেলা সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন

0
95

০৫ মার্চ ২০২২ইং রোজ শনিবার সকাল ১১.০০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গত ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে ৯ দফার সপক্ষে প্রচার প্রচারনা ও জনমত সংগঠিত করার লক্ষ্যে প্রাথমিক কর্মসূচি মোতাবেক ঢাকা ও চট্টগ্রাম জেলা সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে সিএনজি অটোরিকশা চালকের ন্যায়সঙ্গত ৯ দফা দাবীসমূহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট তুলে ধরার দাবিতে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে বিশাল এক র‌্যালির মাধ্যমে পল্টন মোড় হয়ে প্রেসক্লাবে এসে সমাপ্তি হয়।

মানববন্ধনে ঢাকা ও চট্টগ্রাম জেলা সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতিত্ব করেন চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন কোঃ চেয়ারম্যান মোঃ আশ্রাফুল আলম, আহ্বায়ক মো. শাহ আলম, সিনিঃ যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ নাজিম উদ্দিন রানা, যুগ্ম আহ্বায়ক হাফিজুর রহমান, সদস্য সচিব মোঃ ফারুক হোসেন, কোষাধ্যক্ষ সোহরাব খান, যুগ্ম সদস্য সচিব আবুল কালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ইসলাম, রবিউল ইসলাম, মোঃ রফিকুল ইসলাম, মাহবুব হোসেন, মোঃ সগির, আব্দুল মান্নান, মোঃ বাবুল হোসেন প্রমুখ।

৯ দফা দাবীসমূহ

১। সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয় তথা সরকারের নেওয়া সিদ্ধান্তমতে ঢাকা মহানগরী এলাকায় সিএনজি চালিত থ্রি-হুইলার অটোরিকশার বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্সধারী চালকদের মধ্যে বরাদ্দকৃত ৫ হাজার ও চট্টগ্রাম মহানগরী এলাকার জন্য অতিরিক্ত ৪ হাজার সিএনজি চালিত থ্রি-হুইলার অটোরিকশার নিবন্ধন প্রক্রিয়া অবিলম্বে বাস্তবায়ন করতে হবে।
২। সিএনজি/পেট্রোলচালিত ফোরস্ট্রোক থ্রি-হুইলার সার্ভিস নীতিমালা, ২০০৭ কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে।
৩। সিএনজি অটোরিকশার ভাড়ার হার মিটারে প্রথম ২ কি.মি ৮০ (আষি) টাকা, পরবর্তী প্রতি কি.মি ৩০ (ত্রিশ) টাকা এবং ওয়েটিং চার্জ প্রতি মিনিটে ৪ (চার) টাকা নির্ধারণ পূর্বক হেজেট প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে।
৪। সিএনজি অটোরিকশার চালকদের ক্ষেত্রে মামলার (ম্যানুয়্যালি বা পস মেশিনে) আর্থিক জরিমানার হার ৫০০/- (পাঁচশত) টাকার বেশি করা যাবে না।
৫। বিদ্যমান সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ এর ২৩ ও ৩৩ ধারা অনুযায়ী যেকোন শ্রেণির মোটরযানের সংখ্যা বা সীমা (সিলিং) নির্ধারণ পূর্বক রেজিস্ট্রেশন প্রদান করতে হবে।
৬। বিদ্যমান সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ এর ৫২ ধারা অনুযায়ী আর্থিক সহায়তা তহবিল থেকে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত সিএনজি অটোরিকশা চালকের উত্তরাধিকারীকে নির্ধারিত ক্ষতিপূরণ এবং আহত চালকের চিকিৎসা খরচ ঝামেলা ও হয়রানিমুক্তভাবে দ্রুত পাওয়া নিশ্চিত করতে হবে।
৭। সিএনজি অটোরিকশা মালিকদেরকে নিজ নিজ অটোরিকশার চালকের ছবি পূর্ণবিবরণ সংবলিত প্রত্যয়নপত্র দিতে হবে।
৮। সরকারের জারি করা রাইড শেয়ারিং সার্ভিস নীতিমালা অনুযায়ী অনুমোদনবিহীন গাড়ির বাণিজ্যিক ব্যবহার বন্ধ এবং অনুমোদিত গাড়ির চালকদের জন্য রাইড শেয়ারিং লেখা নির্ধারিত ইউনিফর্ম পরা বাধ্যতামূলক করতে হবে।
৯। ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরী এলাকার নিবন্ধিত সিএনজি অটোরিকশার মালিকের দৈনিক জমার হার সরকারী গেজেট প্রজ্ঞাপন জারীর পর বিআরটিএ’র পক্ষ থেকে সার্বক্ষণিকভাবে ম্যাজিস্ট্রেট নিযুক্ত করে পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

৯ দফা সপক্ষে প্রচার প্রচারনা ও জনমত সংগঠিত করার লক্ষ্যে পরবর্তী প্রাথমিক কর্মসূচি ঘোষণা:

১৬ মার্চ ২০২২ খ্রি. সকাল ১১ টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন।
৩০ মার্চ ঢাকায় অনুষ্ঠিত প্রতিনিধি সভা থেকে ব্যাপক ও বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে