নদী রক্ষার নামে অবৈধভাবে ব্যক্তি মালিকানাধীন রেকর্ডিয় সম্পত্তি দখলের প্রতিবাদে সংবাদ

0
98

নিজস্ব প্রতিনিধি: সম্মেলন জাতীয় প্রেসক্লাবে মাওলানা মোহাম্মদ আকরম খাঁ হলে ১৩ই ফেব্রুয়ারী ২০২২ইং রোজ রবিবার সকাল ১১:০০ ঘটিকায় নদী রক্ষার নামে অবৈধভাবে ব্যক্তি মালিকানাধীন রেকর্ডিয় সম্পত্তি দখলের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন উক্ত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হাজী আব্দুল ওয়াছেক আরো উপস্থিত ছিলেন ক্ষতিগ্রস্ত জমির মালিক গন উপস্থিত ছিলেন আনোয়ার হোসেন সরকার, মহর হোসেন দেওয়ার , আলী হোসেন টুটুল,, আগস্টিয় ,, মোহাম্মদ ফজলুল হক

আমরা ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এর অধীনে উত্তরখান খানা তথ্য ৪৬ নং ওয়ার্ডের মৌসাইন, উজ্জামপুর, নির্নিচক ও উত্তরখান মৌজার অধিবাসী। BIWTA কর্তৃক তুরাগ নদীর তীর দিয়া সীমানা পিলার ও ওয়াকওয়ে নির্মাণ কাজ করিতেছে। প্রকৃত পক্ষে উক্ত কাজটি বা ওয়াকওয়ে নদীর তীর দিয়া সম্পূর্ণ করার কথা, কিন্তু BIWTA উক্ত কাজ উল্লেখিত মৌজার বাসিন্দাগণের সি.এস. এস. এ. আর. এস ও মহানগর জরিপ খতিয়ানের ভোগ দখলীয় সম্পত্তির উপর নদীর সীমানা থেকে ৫০ থেকে ১০০ ফুট এবং মৌসাইদ মৌজার নাল ও বোর জমিতে ২৫০ থেকে ৩৫০ ফুট ভিতর দিয়া ওয়াকওয়ে নির্মাণ করিতেছে। যাহা নদী রক্ষা কমিশন আইন ২০১৩ (২৯ নং আইন) আইন বর্হিভূত এবং বাংলাদেশ সংবিধানের আর্টিকেল নং ১০২ নির্দেশনা লংঘন।

খতিয়ানভুক্ত ও খাজনা পরিশোধিত ব্যক্তি মালিকানাধীন সম্পত্তির উপর কোন নোটিশ ছাড়া এবং অধিগ্রহণ ব্যতীত অন্যায় ভাবে সরকারী কাজের অজুহাত দিয়ে ও প্রভাব খাটিয়ে এলাকার জমির মালিকদের হয়রানী মূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।এমতবস্থায় আমরা আপনাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। আমরা জানি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কখনো এই ধরনের অবৈধ কাজ কে সমর্থন করেন না বরং তিনি, গরীব দুঃখী, নিরিহ ও অসহায় মানুষের পাশে থেকে অধিকার ফিরিয়ে দেন। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট আকুল আবেদন যেন ঠিকাদারদের স্বার্থ রক্ষা না করে রেকর্ডিয় সম্পত্তির মালিকদের স্বার্থ রক্ষা করেন। প্রয়োজনে আইন অনুযায়ী অধিগ্রহণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে