বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষকে গ্রেফতারের দাবি খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের

0
381

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের খাদ্যমন্ত্রী ও উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষকে অস্ত্র আইনে গ্রেফতার করা দাবি জানিয়েছেন। তিনি আজ (সোমবার) হাবড়ায় জগদ্ধাত্রী পুজোর উদ্বোধন করতে এসে সাংবাদিকদের দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওই মন্তব্য করেন।

গতকাল (রোববার) পানিহাটির নাটাগড়ে জগদ্ধাত্রী পুজো উদ্বোধনে গিয়ে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষকে তলোয়ার উপহার দেন পুজো উদ্যোক্তারা। এরপরেই এ নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘আমি মাঝে মাঝে বাকরুদ্ধ হয়ে যাই যে, একটা রাজনৈতিক দলের রাজ্য সভাপতি, তাঁর মনোভাব, দৃষ্টিভঙ্গি, চিন্তাধারা একটা অরাজনৈতিক লোকের মতো। মানে একটা গুন্ডার মতো তাঁর চিন্তাধারা! পানিহাটিতে অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছেন। একটা তলোয়ার হাতে তুলে নিয়েছেন। এটা কী? রাজনৈতিক লোকেরা অস্ত্র নিয়ে ঘুরে বেড়াবে? অস্ত্র ব্যবহার করবে, এটা হতে পারে? এর বিরুদ্ধে কেস করা উচিত। অবিলম্বে এর বিরুদ্ধে কেস করে পুলিশের ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত।’  

পানিহাটির নাটাগড়ে তলোয়ার হাতে বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ 

জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘দিলীপ ঘোষকে কয়েকদিন ধরে দেখছি, তাঁর তিন পয়সার যোগ্যতা, সে দশ পয়সার কথা বলছে! স্বাভাবিকভাবে মানুষ বিচলিত হয়েছে যে একটা সর্বভারতীয় রাজনৈতিক দল যারা ক্ষমতায় রয়েছে, তার সভাপতির ভূমিকা বাচ্চা ছেলের মতো! মাঝে মাঝে সে অপ্রাসঙ্গিক কথা বলছে, যে কথার কোনও যুক্তি নেই। মাঝে মাঝে বলছে একে মেরে দেবো, ওকে ধরে দেবো। আজ অস্ত্র হাতে তুলেছেন। এই অস্ত্র উনি নিতে পারেন? অবিলম্বে অস্ত্র আইনে দিলীপ ঘোষকে গ্রেফতার করা উচিত। ওঁর বিরুদ্ধে সুয়োমোটো কেস হবে। অস্ত্র রাখা উচিত নয়, তলোয়ার রাখা উচিত নয়। তলোয়ার নিয়ে ঘুরেছে, সুতরাং অস্ত্র আইনে অবিলম্বে গ্রেফতার করা উচিত।’

এদিকে, পানিহাটির তৃণমূল বিধায়ক নির্মল ঘোষ বলেছেন, এটা বিজেপির সংস্কৃতি। এত বড় বড় তরোয়াল কোথা থেকে এলো, তা পুলিশকে দেখতে বলা হয়েছে।

অন্যদিকে, বিজেপির কলকাতা উত্তর শহরতলির সম্পাদক চণ্ডীচরণ রায়ের পাল্টা দাবি, এটা বীরত্বের সম্মান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে